গণিতের যে শাখা আকার, আকৃতি, এ সংক্রান্ত বিভিন্ন চিত্র বা নকশা সমূহের মধ্যে পারস্পারিক সম্পর্ক বা তাদের আপেক্ষিক অবস্থান এবং স্থান বা জগতের বৈশিষ্ট্য নিয়ে আলোচনা করে তাকে জ্যামিতি বলে। এখানে জগত বলতে ত্রিমাত্রিক জগতকে বুঝানো হয়েছে যা দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা বরাবর অসীম পর্যন্ত বিস্তৃত। তাহলে নির্দিষ্ট কোনো বস্তুরContinue Reading

 
 
Summary

☞ (a+b)²= a²+2ab+b² ☞ (a+b)²= (a-b)²+4ab ☞ (a-b)²= a²-2ab+b² ☞ (a-b)²= (a+b)²-4ab ☞ a² + b²= (a+b)²-2ab. ☞ a² + b²= (a-b)²+2ab. ☞ a²-b²= (a +b)(a -b) ☞ 2(a²+b²)= (a+b)²+(a-b)² ☞ 4ab = (a+b)²-(a-b)² ☞ ab = {(a+b)/2}²-{(a-b)/2}² ☞ (a+b+c)² = a²+b²+c²+2(ab+bc+ca) ☞ (a+b)³ = a³+3a²b+3ab²+b³ ☞ (a+b)³ = a³+b³+3ab(a+b)Continue Reading

 
 
Summary

(PART-01 এর সহজ অংকগুলো যে কোন বই থেকে নিজে করার চেষ্টা করুন বুঝতে না পারলে আমাকে নক করতে পারেন) ( PART -02 কাজ করা অবস্থায় কেউ চলে অথবা দুটি নলের একটি বন্ধ হয়ে গেলে) প্রশ্ন: ১. ক একটি কাজ ২০ দিনে করতে পারে এবং খ কাজটি ৩০ দিনে করতে পারে।Continue Reading

 
 
Summary

১.তিন কোণ দেওয়া থালে যে সকল ত্রিভুজ আঁকা যায় তাদের বলে- =সদৃশ ত্রিভুজ। . ৩.ত্রিভুজের যে কোনো বাহুকে উভয়দিকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ কোণদ্বয়ের সমষ্টি- =দুই সমকোণ অপেক্ষা বৃহত্তম। . ৩.কোন ত্রিভুজের একটি বাহু উভয় দিকে বর্ধিত করায় উৎপন্ন বহিঃস্থ কোণগুলি সমান হলে , ত্রিভুজটি- =সমদ্বিবাহু। . ৪. ২৫৩ ডিগ্রিContinue Reading

 
 
Summary

গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা, মনযোগ দিয়ে পড়ুন। কারণ অনেকেই গুলিয়ে ফেলেন: – # পয়েন্ট : 01 ; গতিবেগের ক্ষেত্রে যার গতি কম তাকে সময় লাগে বেশি এবং যার গতি বেশি তার সময় লাগে কম। # পয়েন্ট :02 : তেমনিভাবে সময় এবং কাজের অংকগুলোর ক্ষেত্রে যে বেশি কর্মঠ বা কাজে এক্সপার্ট তার সময়Continue Reading

 
 
Summary

‎গুরুত্বপূর্ণ‬ আলোচনা, মনযোগ দিয়ে পড়ুন। অনেক কিছুই ক্লিয়ার হবে: – ‪#‎পয়েন্ট‬: 01 ; গতিবেগের ক্ষেত্রে যার গতি কম তাকে সময় লাগে বেশি এবং যার গতি বেশি তার সময় লাগে কম। #পয়েন্ট:02 : তেমনিভাবে সময় এবং কাজের অংকগুলোর ক্ষেত্রে যে বেশি কর্মঠ বা কাজে এক্সপার্ট তার সময় লাগে কম। #( BBContinue Reading

 
 
Summary

‪#‎আসুন‬ লিখিত ম্যাথ শিখি: (লাভক্ষতি + সুদকষা = ৩৬তম বিসিএস লিখিত ) ================== ‪#‎সুদকষার‬ : ১) ‪#‎একজন‬ বিনেয়োগকারী ৮০,০০০ টাকার কিছু প্রতি ৬ মাস অন্তর ৫% হার সুদে এবং অবশিষ্ট বাৎসরিক ১২% হারে একটি সেভিংস ব্যাংকে জমা করল। বছর শেষে তিনি ৯০০০ টাকা সুদ পেলেন। তাহলে তিনি ১২% হার সুদেContinue Reading

 
 
Summary

বিসিএস সহ‬ যে কোন প্রতিযোগিতামুলক পরিক্ষার জন্য গণিত বিদেরনামের তালিকা‬ – ১. সংখ্যাতত্ত্ব—- পিথাগোরাস ২. জ্যামিতি——ইউক্লিড ৩. ক্যালকুলাস —– নিউটন ৪. ম্যাট্রিক্স ——– কেইসে ৫. ত্রিকোণমিতি—— হিপ্পারচাস ৬. পাটিগণিত—— আর্যভট্র ৭. বীজগণিত ——- মুসা আল খারিজমী ৮. লগারিদম——জন নেপিয়ার ৯. সেটতত্ত্ব——–জর্জ ক্যান্টর ১০. আলগরিদম——-ব্রহ্মগুপ্ত ১১. শূন্যে আবিষ্কারক ——ব্রহ্মগুগুপ্ত ও আর্যভট্রContinue Reading

 
 
Summary

বিসিএস সহ‬ যে কোন প্রতিযোগিতামুলক পরিক্ষার জন্য ※ পূর্ণ বক্ররেখার দৈর্ঘ্য কে বলা হয়? =পরিধি ※ বৃত্তের পরিধির সূত্র =2πr ※পরিধির যেকোন অংশকে বলা হয় =চাপ ※পরিধির যেকোন দুই বিন্দুর সংযোগ সরলরেখাকে বলা হয় =জ্যা( বৃত্তের ব্যাস হচ্ছে বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা) ※ বৃত্তের কেন্দ্রগামী সকল জ্যা-ই =ব্যাস ※ কেন্দ্র থেকেContinue Reading

 
 
Summary

বিসিএস সহ‬ যে কোন প্রতিযোগিতামুলক পরিক্ষার জন্য ১. কোন ত্রিভুজের তিনটি বাহুকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ কোণ তিনটির সমষ্টি — ৩৬০ ডিগ্রী . ২.সমকোণী ত্রিভুজের সমকোণ সংলগ্ন বাহুদ্বয় যথাক্রমে ৩,৪ সেমি হলে, অতিভুজের মান কত? — ৫ সে.মি . ৩.সামন্তরিকের বিপরীত কোণের অর্ন্তদ্বিখন্ডকদ্বয় –পরস্পর সমান্তরাল . ৪. একটি বর্গক্ষেত্রের একContinue Reading

 
 
Summary

জ্যামিতিক সূত্র মনে রাখুন, সবার জন্য সবসময়ই কাজে দিবে – বৃত্তের ক্ষেত্রফল সম্পর্কিত সূত্র: ১. বৃত্তের ক্ষেত্রফল = πr² [এখানে, r বৃত্তের ব্যাসার্ধ; π = ৩.১৪৩] ২. বৃত্তের পরিধি = ২πr ৩. গোলকের পৃষ্ঠের ক্ষেত্রফল = 4πr² ৪. গোলকের আয়তন = 4/3πr³   Summary

 
 
Summary

জ্যামিতিক সূত্র মনে রাখুন, সবার জন্য সবসময়ই কাজে দিবে – চতুর্ভূজের ক্ষেত্রফল ১. আয়তক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = দৈর্ঘ্য x প্রস্থ ২. বর্গক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = (বাহু)² ৩. সামন্তরিক ক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = ভূমি x উচ্চতা ৪. আয়তক্ষেত্রের পরিসীমা = ২ (দৈর্ঘ্য +প্রস্থ) ৫. বর্গক্ষেত্রের পরিসীমা = 4 x এক বাহুর পরিমাণ   Summary

 
 
Summary

জ্যামিতিক সুত্র মনে রাখুন, সবার জন্য সবসময়ই কাজে দিবে – ত্রিভুজের ক্ষেত্রফল 1. ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = ১/২(ভূমি×উচ্চতা) 2. সমকোণী ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = ১/২(সমকোণ সংলগ্ন বাহুদ্বয়ের গুণফল) 3. সমদ্বিবাহু ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = a/4√(4b² -a²) যেখানে, a= ভূমি; b= অপর বাহু 4. সমবাহু ত্রিভূজের ক্ষেত্রফল = √(3/4)a² ; এখানে, a = যে কোন বাহুর দৈর্ঘ্য   Summary

 
 
Summary

শতকরা (Percentage) শতকরা হলো একটি ভগ্নাংশ যার হর সবসময় ১০০ এবং লব শতকরায় নির্ণিত সংখ্যা। যেমন ২০ অংকটির শতকরায় প্রকাশ করলে হবে ২০%। কৌশলগত সুত্র যদি A এর আয় B এর আয় অপেক্ষা r% বেশী হয়, তবে B এর আয় A এর আয় অপেক্ষা কম হবে = (r x ১০০)Continue Reading

 
 
Summary

বিভিন্ন Term এর বাংলা ও ইংরেজী নাম বিসিএস এ বাংলায় অংক আসলেও বিভিন্ন ব্যাংক বা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের পরিক্ষায় অংক আসে ইংরেজীতে । তাই , প্রথমেই জানব বিভিন্ন Term এর বাংলা ও ইংরেজী নাম । যেমন , Number – সংখ্যা Digit – অংক Integer – পূর্ন সংখ্যা Even number – জোড়Continue Reading

 
 
Summary

Profit-Loss (লাভ-ক্ষতি) লাভ = বিক্রয় মূল্য – ক্রয় মূল্য। ক্ষতি = ক্রয় মূল্য – বিক্রয় মূল্য। লাভ বা ক্ষতি সব সময় ক্রয় মূল্যের উপর হিসেব করা হয়। ধর যাক কোন কিছু ১০% লাভে বিক্রয় করা হলো, তাহলে বিক্রয় মূল্য = ক্রয় মূল্যের ১১০%। ধর যাক কোন কিছু ১০% ক্ষতিতে বিক্রয়Continue Reading

 
 
Summary

Interest Calculation (সুদকষা) সুত্র আসলঃ যে পরিমাণ টাকা ধার দেওয়া বা নেয়া হয়, তাকে আসল বলে। সুদঃ আসলের অতিরিক্ত যে টাকা ঋণদাতাকে দেওয়া হয়, তাকে সুদ বলে। সুদাসলঃ সুদ + আসল সরল সুদঃ সুদের হিসাব যদি পুরো সময়ের জন্য সুষমভাবে করা হয়, তবে তাকে সরল সুদ বলে। কৌশলগত সুত্র সরল সুদContinue Reading

 
 
Summary

টেকনিক: যখন ২টি নল দ্বারা একটি চৌবাচ্চা পূর্ণ হয় তখন সম্পূর্ণ চৌবাচ্চাটি পূর্ণ হতে প্রয়োজনীয় সময়, T=[mn ÷(m + n)] এখানে, m=১ম নল দ্বারা চৌবাচ্চা পূর্ণ হতে প্রয়োজনীয় সময় n=২য় নল দ্বারা চৌবাচ্চা পূর্ণ হতে প্রয়োজনীয় সময় প্রশ্ন-১ একটি চৌবাচ্চা ২টি নল দ্বারা যথাক্রমে ২০ ও ৩০ মিনিটে পূর্ণ হয়। নলContinue Reading

 
 
Summary

বাংলায় অংক আসলেও বিভিন্ন ব্যাংক বা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের পরিক্ষায় অংক আসে ইংরেজীতে । তাই , জেনে নিন বিভিন্ন Term এর বাংলা ও ইংরেজী নাম । যেমন , Number – সংখ্যা Digit – অংক Integer – পূর্ন সংখ্যা Even number – জোড় সংখ্যা Odd number – বিজোড় সংখ্যা Fraction – ভগ্নাংশContinue Reading

 
 
Summary

অনুপাতের অংক গুলো করার জন্য শুধু ৩টি টেকনিক মনে রাখুন- ★ সুত্রঃ ১ মনে রাখুনঃ যখন দুইটি অনুপাতের সংখ্যা দুইটির প্রার্থক্য একই হয় তখন- # টেকনিক : p={(x ÷ s)× d} অর্থাৎ মিশ্রিত দ্রব্যের পরিমান(p)=মোট মিশ্রনের পরিমান(x) ÷ অনুপাতের ছোট সংখ্যা(s) × অনুপাতের প্রার্থক্য(d) . # উদাহরনঃ 60লিটার কেরোসিন ও পেট্রোলেরContinue Reading

 
 
Summary